মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

হাতের মুঠোয় কাঁচা বাজার

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস মহামারীর তাণ্ডবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে বিশ্ব অর্থনীতি। আর এ করোনাভাইরাসের ছোবল থেকে রক্ষা পায়নি আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশও। করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে সমগ্র বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশও গ্রহণ করেছে ‘ঘরে থাকুন, নিরাপদে থাকুন’ কর্মসূচি, যার কারণে রাস্তা-ঘাট, যান চলাচল, অফিস-আদালত, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে বাংলাদেশের সমগ্র জনগোষ্ঠী। স্থবির হয়ে গেছে অর্থনীতির চাকা। এদিকে খুলনায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হওয়ায় খুলনা জেলাকে লকডাউন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ফলে আন্তঃজেলা যান-চলাচল বন্ধ রয়েছে, এমনকি জেলার অভ্যন্তরে স্বাভাবিক যান-চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। কৃষি ও কৃষি-জাত পণ্যের সরবরাহ ও বাজার ব্যবস্থাপনা স্বাভাবিক যান-চলাচলের উপর নির্ভরশীল হওয়ায় এটিও বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। প্রান্তিক কৃষকরা তাদের উৎপাদিত পণ্য বাজারে আনতে পারছেন না। অনেক পচনশীল কৃষিপণ্য বিক্রয় করতে না পারায় নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। ফলে কৃষকরা না পারছেন লাভ করতে, না পারছেন উৎপাদনের খরচ তুলতে। এই অচল অবস্থা কৃষিপণ্য উৎপাদনে কৃষককে নিরুৎসাহিত করে তুলছে।

       মাননীয় প্রধানমন্ত্রী উদ্ভূত করোনা পরিস্থিতিতে বিশ্বব্যাপী খাদ্য-সংকটের আভাস দিয়ে দেশবাসীকে সম্ভাব্য প্রতি ইঞ্চি জায়গাতে ফসল উৎপাদনের আহ্বান জানিয়েছেন। লকডাউনের অবসর সময়কে কাজে লাগিয়ে দেশবাসীকে শস্য, শাক-সবজি ও তরি-তরকারি উৎপাদনে শ্রম দিতে অনুরোধ করেছেন তিনি। কিন্তু লকডাউনের কারণে উৎপাদিত পণ্য বাজারজাত না হলে একই সাথে শ্রম ও অর্থ বিনষ্ট হবে। তাই কৃষি উন্নয়নে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীরর দূরদর্শী ভাবনা থেকে উৎসাহিত হয়ে খুলনার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন গ্রহণ করেছেন বিভিন্ন উদ্ভাবনী উদ্যোগ, যা একই সাথে স্থবির কৃষি অর্থনীতিতে গতি সঞ্চার করেছে এবং জাতীয় উন্নয়নে ইতিবাচক অবদান রাখছে।

ছবি


সংযুক্তি

49b868610a93c21de1288771c5e74fcd.pdf 49b868610a93c21de1288771c5e74fcd.pdf


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter