মেনু নির্বাচন করুন

খুলনা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়

  • সংক্ষিপ্ত বর্ণনা
  • প্রতিষ্ঠাকাল
  • ইতিহাস
  • প্রধান শিক্ষক/ অধ্যক্ষ
  • অন্যান্য শিক্ষকদের তালিকা
  • ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা (শ্রেণীভিত্তিক)
  • পাশের হার
  • বর্তমান পরিচালনা কমিটির তথ্য
  • বিগত ৫ বছরের সমাপনী/পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল
  • শিক্ষাবৃত্ত তথ্যসমুহ
  • অর্জন
  • ভবিষৎ পরিকল্পনা
  • ফটোগ্যালারী
  • যোগাযোগ
  • মেধাবী ছাত্রবৃন্দ

পূর্ব পাকিস্থানের দক্ষিন পশ্চিমাঞ্চলে নারী শিক্ষা প্রসারের লক্ষ্যে ১৯৬৭ সালে বিভাগীয় শহর খুলনাতে সরকারি ভাবে ‘খুলনা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়’ প্রতিষ্ঠিত হয়। খুলনা শহরের বয়রা এলাকায় সরকারি ভাবে অধিগ্রহনকৃত স্থানে প্রায় ৫.৫২ একর জমির উপর বিদ্যালয়টি স্থাপিত। ৩য় শ্রেণী থেকে ১০ম শ্রেণী পর্যন্ত ১১৫০ জন ছাত্রী এখানে লেখা পড়া করে। প্রধান শিক্ষিকা সহ মোট ২৭ জন শিক্ষক শিক্ষিকা এখানে পাঠ দান করে থাকেন। লেখাপড়ার পাশাপাশি ছাত্রীরা আবৃত্তি, চিত্রাঙ্কন, বিতর্ক, সংগীত, নৃত্য, গনিত উৎসব, ভাষা প্রতিযোগ, ক্রিড়া প্রতিযোগিতা সহ বিভিন্ন ধরনের প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহন করে থাকে এবং স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায় থেকে বিদ্যালয়ের জন্য সুনাম ও সম্মান বয়ে আনে। এছাড়া বিভিন্ন জাতীয় দিবস ও বিশেষ দিবস গুলিতে ছাত্রী ও শিক্ষক বৃন্দ সক্রিয় ভাবে অংশ গ্রহন করে থাকেন। ১৯৯০ সালে বিদ্যালয়টি শিক্ষা মন্ত্রনালয় কর্তৃক শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসাবে স্বীকৃতি লাভ করে। বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদে জেলা প্রশাসক, খুলনা মহোদয় সভাপতি এবং প্রধান শিক্ষিকা সদস্য সচিব হিসাবে গুরুত্ব পূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। বিদ্যালয়ের লেখা পড়া ও সার্বিক মান উন্নয়নে প্রধান শিক্ষিকা তথা শিক্ষক বৃন্দ সব সময় আন্তরিক।

১৯৬৭ খ্রীষ্টাব্দ ।

তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের দক্ষিন পশ্চিম অঞ্চলে নারী শিক্ষা বিস্তারের লক্ষ্যে বিভাগীয় শহর খুলনাতে ১৯৬৭ খ্রীষ্টাব্দে সরকারি ভাবে খুলনা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় শিক্ষাকার্যক্রম শুরু করে। এর পূর্বে ১৯৬২ খ্রীষ্টাব্দে ভুমি অধিগ্রহন অধিদপ্তর জেলা প্রশাসনের সহায়তায় বয়রা অঞ্চলে বিভিন্ন সরকারি অফিস স্থানান্তরের জন্য ভুমি অধিগ্রহন করে। অধিগ্রহনকৃত ভুমির মধ্যে ৫.৫২ একর জমিতে বিদ্যালয় নির্মানের লক্ষ্যে ১৯৬৫ সালে ভবন নির্মানের কার্যক্রম শুরু হয় এবং ১৯৬৭ সালে ১লা জানুয়ারী থেকে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়। বিদ্যালয়ের প্রথম প্রধান শিক্ষিকা হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন মিসেস রাজিয়া মজিদ। আবাসিক বিদ্যালয় হিসাবে যাত্রা শুরু করলেও বর্তমানে ছাত্রীদের হোষ্টেলটি উপ-পরিচালক, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা, খুলনা অঞ্চল, খুলনা মহোদয়ের কার্যালয় হিসাবে ব্যবহৃত হচ্ছে।  

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল
নাসিমা বেগম 0 debhadda@gmail.com

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল

 মোট ছাত্র/ছাত্রীর সংখ্যাঃ

 

১১৫০ (এক হাজার একশত পঞ্চাশ) জন।

 

ছাত্র/ছাত্রীর সংখ্যা (শ্রেণী ভিত্তিক)ঃ

 

৩য়- ১২০                ৬ষ্ঠ- ১৪২           ৯ম- ১৫৬

৪র্থ- ১৪২                ৭ম- ১৫৩          ১০ম-১৪৪   

৫ম- ১৩৬                 ৮ম- ১৩৫ 

১০০% (শত ভাগ)

ক্রঃ নং

নাম

পদবী

০১

 জেলা প্রশাসক

সভাপতি

০২

প্রধান শিক্ষিকা

সদস্য-সচিব

০৩

জেলা শিক্ষা অফিসার

সদস্য

০৪

সিভিল সার্জন

সদস্য

০৫

নির্বাহী প্রকৌশলী, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর

সদস্য

বিগত ৫ বছরের পাবলিক পরীক্ষার ফলাফলঃ

 

১০০ ভাগ পাস

৬ষ্ঠ শ্রেণী থেকে ১০ম শ্রেণী পর্যন্ত ৪৫ জন ছাত্রী শিক্ষা বৃত্তি পাচ্ছে।

১৯৯০ সালে শিক্ষা মন্ত্রনালয় কর্তৃক শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসাবে স্বীকৃত।

বর্তমানে বিদ্যালয়টিতে ৩য় শ্রেণী থেকে ১০ম শ্রেণী পর্যন্ত পাঠদান করানো হয়। শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের ব্যাপক চাহিদার ভিত্তিতে বিদ্যালয়ে ডাবল শিফট খোলার পরিকল্পনা কর্তৃপক্ষের আছে। এছাড়া শিক্ষানীতি অনুযায়ী উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণী পর্যন্ত উন্নীত করার ইচ্ছা কর্তৃপক্ষের রয়েছে।

খুলনা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়,

ডাকঘর- জিপিও-৯০০০, থানা- সোনাডাঙ্গা, খুলনা।  

ফোনঃ ০৪১-৭৬১১৩২

E-mail - debhadda@gmail.com



Share with :

Facebook Twitter